প্রয়াত হলেন বড়মা

প্রয়াত হলেন বড়মা

প্রয়াত হলেন বড়মা

কলকাতাঃ প্রয়াত হলেন মতুয়া মহাসঙ্ঘের বড়মা বীণাপাণি দেবী। বুধবার রাত ৮টা বেজে ৫২ মিনিটে কলকাতার এস এস কে এম হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। অনেকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরেই ফুসফুসে সংক্রমনের কারনে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। প্রথমে বড়মাকে কল্যানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাঁকে নিয়ে আসা হয় কলকাতার এস এস কে এম হাসপাতালে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই বড়মার জন্য গঠন করা হয়েছিলো মেডিকেল বোর্ড। কিন্তু বুধবার দুপুর থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় বড়মার শারীরিক অবস্থার পরিনতি এতটাই খারাপ ছিলো যে তাঁর দেহের একাধিক অঙ্গ বিকল হয়ে যায়। বিকেলের পর থেকে শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে বড়মার। চিকিৎসায়ও সারা দিচ্ছিলেন না তিনি। বড়মার শারীরিক অবস্থার খবর শুনে সন্ধ্যায় হাসপাতালে ছুটে আসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী হাসপাতাল থেকেই বেড়িয়ে যাওয়ার পর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বড়মা বীণাপাণি দেবী।

বড়মার মৃত্যুর খবর শোনার পরেই শোকপ্রকাশ করে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। গ্যান স্যালুটে বিদায় জানানো হবে বড়মাকে। বড়মার প্রয়ানের খবর শোনার পরেই হাসপাতালে ছুটে আসেন শাসক দলের একাধিক নেত্রা-নেত্রী থেকে শুরু করে মতুয়া সংঘের ভক্তরা। উপস্থিত ছিলেন সাংসদ তথা বীণাপাণি দেবীর বৌমা মমতা বালা ঠাকুর।

মঙ্গলবার অসুস্থ বড়মাকে এস এস কে এম হাসপাতালে দেখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “যখন কেউ মতুয়াদের চিনত না, মতুয়াদের বড়মাকে চিনত না, তখন থেকে বড়মার সঙ্গে হৃদ্যতা তাঁর। ২০ বছর ধরে তাঁরা একে অপরকে চিনতেন। বড়মাকে নিয়ে অনেক রাজনীতি হয়েছে। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে তিনি সেসব প্রসঙ্গ তুলতে চান না। এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে কাছের লোকের পাশে থাকা খুব দরকার। পুত্রবধূ মমতাবালা ঠাকুর সর্বক্ষণ তাই করছেন। বীণাপাণি দেবীর পাশে রয়েছেন তিনি। “এর আগে অনেকবার অসুস্থ হয়েছেন বড়মা। প্রতিবারই তাঁকে সুস্থ করে নিয়ে যেতে পেরেছি। এবারও নিয়ে যেতে পারলে খুশি হব। কিন্তু সব সময় সব কিছু তো আর মানুষের হাতে থাকে না। ডাক্তাররা চেষ্টা করছেন।” মুখ্যমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, “ বড়মার মৃত্যুতে মতুয়া মহাসংঘের বড় ক্ষতি হল।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে আজ রাতেই বড়মার ডেথ সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। বুধবার সকাল ৮টায় এস এস কে এম হাসপাতাল থেকে বের করা হবে বড়মার মৃতদেহ। সেখান থেকে যশোরোড হয়ে ঠাকুর নগরে নিয়ে যাওয়া হবে বড়মার মরদেহ। ঠাকুরবাড়িতে বড়মার মরদেহ শায়িত থাকবে। সেখানেই বড়মাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন মতুয়া সংঘের অগনিত ভক্তরা। এমনটাই কিন্তু ঠাকুরবাড়ি সূত্রে জানা গেছে। বড়মার মৃত্যুর খবর পেয়ে শোকে বিহ্বল হয়ে পড়েছেন মতুয়া সংঘের ভক্তরা।

 

 

24 Ghanta Khobor News Desk

Related Posts

leave a comment

Create Account



Log In Your Account



error: Content is protected !!